শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:১৪ অপরাহ্ন

আপডেট
*** অনলাইন নিউজ পোর্টাল / অনলাইন টেলিভিশন সহ যে কোন ধরনের ওয়েবসাইট তৈরির  জন্য আজই যোগাযোগ করুন  - ০১৬৪৬৯৯০৮৫০।।  ভিজিট করুন - www.popularhostbd.com।।

গাজা-সিরিয়ায় ইসরায়েলি বিমান হামলা, ইসলামিক জিহাদ নেতাকে সপরিবারে হত্যা

গাজা-সিরিয়ায় ইসরায়েলি বিমান হামলা, ইসলামিক জিহাদ নেতাকে সপরিবারে হত্যা

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকা ও সিরিয়ায় সোমবার দিবাগত মধ্যরাতে বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। গাজায় হামলা চালিয়ে অঞ্চলটির সশস্ত্র স্বাধীনতাকামী সংগঠন ইসলামিক জিহাদের একজন শীর্ষস্থানীয় নেতাকে হত্যা করেছে দখলদার বাহিনী। এতে তার স্ত্রীও নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত আরও দুইজন। অন্যদিকে সিরিয়ায় হামলা চালিয়ে ওই নেতার ছেলেকেও হত্যা করা হয়েছে। ইসলামিক জিহাদের পক্ষ থেকে মঙ্গলবারের ওই হামলায় তাদের নেতা বাহা আবু আল আতা (৪২)-এর নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।
ইসরায়েলের পক্ষ থেকে বাহা আবু আল আতাকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করে গাজা উপত্যকায় বিমান হামলা চালানোর বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

ইসলামিক জিহাদ জানিয়েছে, বাহা আবু আল আতা ছাড়াও এদিন সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে দলের আরেক নেতার বাড়িতে হামলা চালিয়েছে দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী। এ সিরিজ হত্যাযজ্ঞের প্রতিশোধ নেওয়ার অঙ্গীকার করেছে ইসলামিক জিহাদ। দলটির এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আমাদের অনিবার্য প্রতিশোধ ইহুদিবাদীদের অস্তিত্বে আঘাত হানবে। গাজা উপত্যকার ক্ষমতাসীন দল ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস বলেছে, এই উত্তেজনা বৃদ্ধির পরিণামের দায় ইসরায়েলকেই বহন করতে হবে। এই হত্যাকাণ্ডকে ছেড়ে দেওয়া হবে না বলেও হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে দলটি।

ইসরায়েলি বাহিনী জানিয়েছে, দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু-র নির্দেশেই এ হামলা চালিয়েছে তারা। নিহত ইসলামিক জিহাদ নেতার বিরুদ্ধে ইসরায়েলবিরোধী তৎপরতারও অভিযোগ এনেছে তেল আবিব।

ইসরায়েলি বাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গাজা উপত্যকায় ইসলামিক জিহাদের অধিকাংশ কর্মকাণ্ডের জন্য দায়ী ছিলেন আবু আল আতা। ফিলিস্তিনিদের ভূমি জবরদখল করে ১৯৪৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় কথিত ইহুদি রাষ্ট্র ইসরায়েল। ১৯৬৭ সালের আরব যুদ্ধের পর থেকে ইসরায়েল পূর্ব জেরুজালেম দখল করে রেখেছে। ২০১৯ সালের জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনে ইসরায়েলের এই অব্যাহত দখলদারিত্বের কঠোর সমালোচনা করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান। তিনি বলেন, ইসরায়েলের ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড দখলের কোনও বৈধতা নেই। এ ইস্যুতে তুরস্কের অবস্থান স্পষ্ট। ১৯৬৭ সালের সীমান্ত পরিকল্পনা অনুযায়ী আলাদা ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠন করতে হবে এবং পূর্ব জেরুজালেম তাদের রাজধানী হবে। মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদের মতে, ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডে ইসরায়েলি দখলদারিত্ব প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়েই দুনিয়াজুড়ে সন্ত্রাসবাদ ছড়িয়ে পড়েছে। সূত্র: আল জাজিরা, আনাদোলু এজেন্সি।


Search News




© Daily matrichaya. All rights reserved.
Design BY PopularHostBD